সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১:৩৭

একজন গৃহবধুকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : জমি বিক্রির ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের হামলায় ফজিলা খাতুন (৩৫) নামে এক গৃহবধুকে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে আর এই ঘটনা শেরপুর জেলার সদর উপজেলার চরশেরপুর ইউনিয়নের টাঙ্গারপাড়া গ্রামে।
বুধবার (৩১মার্চ) সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেরপুর সদর হাসপাতালে তিনি মারা যান৷ নিহত গৃহবধু ফজিলা খাতুন সদর উপজেলার টাঙ্গাপাড়া গ্রামের তহুর উদ্দিনের স্ত্রী৷
এর আগে ২৯ মার্চ সোমবার টাঙ্গারপাড়া গ্রামে নিজ বাড়ীতে ফজিলা খাতুন হামলার শিকার হন৷
নিহতের স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ৭ শতাংশ জমি বিক্রির ঘটনাকে কেন্দ্র করে বেশ কিছুদিন ধরে সদর উপজেলার টাঙ্গারপাড়া গ্রামের ফজিলা খাতুনের বড় ভাই আজাদ ও নূর নবীর সঙ্গে একই গ্রামের জমি বিক্রয়ের দালাল আলিফ মিয়া ও বজলু মিয়ার বিরোধ চলে আসছিলো৷ এরই জের ধরে ২৯ মার্চ সোমবার সকালে আলিফ মিয়ার নেতৃত্বে বজলু মিয়া ও মঞ্জু মিয়াসহ আরো কয়েক ব্যক্তি টাঙ্গারপাড়া গ্রামের বাড়ীতে গিয়ে আজাদ ও নূর নবীর বোন ফজিলা খাতুনকে বাঁশ দিয়ে বেদম মারপিট করেন৷ এতে ফজিলা খাতুন গুরুতর আহত হন৷ পরে স্বজনেরা তাকে উদ্ধার করে শেরপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন৷ সেখানে চিকিৎসা অবস্থায় বুধবার সকালে ফজিলা খাতুন মারা যান৷
খবর পেয়ে সদর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল ওয়াদুত সঙ্গীয় ফোর্সসহ জেলা সদর হাসপাতালে গিয়ে ফজিলা খাতুনের মৃতদেহের সূরতহাল রিপোর্ট তৈরী শেষে ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর জেলা সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়৷
সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ ও শেরপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের প্রস্তুতি চলছে৷ ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের আটকের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে পুলিশ৷