শনিবার, ২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, রাত ১২:১০

পূর্ব বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষ।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : বৃহস্পতিবার ২২ অক্টোবর সকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার গোকর্ণ ইউনিয়নের নূরপুর গ্রামে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে নূরপুর গ্রামের টেন্ডার পাড়ায় ছায়েব আলী মিয়ার বাড়িতে গানের আসর বসে। সেখানে গান গাওয়া নিয়ে স্থানীয় হুমায়ুনের পক্ষের ফুল মিয়াকে গালমন্দ করেন পরশ মিয়ার পক্ষের শিপন মিয়া। এ নিয়ে ঘটনার দিন বুধবার বিকেলে প্রথমে উভয় পক্ষের লোকজন মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে পূর্ব বিরোধের জের ধরে বৃহস্পতিবার সকালে দুই পক্ষের লোকজন আবারো দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে আবারো সংঘর্ষে লিপ্ত হয়।
সংঘর্ষে উভয় পক্ষের অন্তত ২৫ জন আহত হয়। খবর পেয়ে নাসিরনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। আহতদের মধ্যে একজনকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে এবং অন্যদের নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ চিকিৎসা দেয়া হয়।
ঘটনা সম্পর্কে স্থানীয় গোকর্ণ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ছোয়াব আহমেদ হৃতুল বলেন, পূর্ব বিরোধের জেরে উভয়পক্ষের লোকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পরে পুলিশকে খবর দিলে তাৎক্ষণিকভাবে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এটিএম আরিচুল হক বলেন, পূর্ব বিরোধের জের ধরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানতে পেরেছি।
সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।
সংঘর্ষের স্থল থেকে দাঙ্গাবাজীর দায়ে এখন পর্যন্ত পুলিশ পরশ মিয়া, খসরু মিয়া, মঞ্জু মিয়া, হাসান আলী, ফুল মিয়া, বাছির মিয়া সহ ৭ জনকে আকট করা হয়েছে। পরবর্তী সংঘর্ষের আশংকায় ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ ঘটনায় এখনো থানায় মামলা হয়নি।