বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:৫৯

নারী সেজে প্রতারণার দায়ে একজনকে র‌্যাব গ্রেফতার করেছে।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : নরসিংদী জেলার মনোহরদী পৌরসভা বাজার হতে গতকাল (২০ অক্টোবর) সন্ধ্যায় অভিযুক্ত প্রতারক মাসুক মিয়া মাসুদকে (২৮) গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৪। তার বাড়ি সিলেট জেলায়, তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নারী সেজে প্রতারণার দায়ে গ্রেফতার হয়েছে এবং গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব-৪)।
আজ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব জানায়, ‘র‌্যাব-৪ এর কাছে বিভিন্ন সময় অভিযোগ আসে যে, মেয়েদের নামে ফেক ফেসবুক আইডি খুলে সুন্দরী মেয়ের ছবি দিয়ে বিভিন্ন জনকে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে নানাভাবে প্রলুব্ধ করে বিকাশের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে। ভুয়া আইডি ও প্রোফাইল পিকচার দিয়ে ফেইসবুক ব্যবহার করে সেখানে সুন্দরী নারীর ছবি, বন্ধু হওয়ার আমন্ত্রণ করা হয় এবং একবার এই আমন্ত্রণে সাড়া দিলেই হয় মোবাইল নাম্বার লেনদেন। দীর্ঘ সময় ধরে হয় নারী কন্ঠে বন্ধুত্বপূর্ন আলাপ, প্রেম ও ভালোবাসা। এর একপর্যায়ে বন্ধুর সাথে দেখা করার জন্য সে ঢাকার উদ্দেশ্য রওয়ানা করেন। এরপর পথে দূর্ঘটনা আবার হাসপাতালে ভর্তি। তাৎক্ষনিক মিটমাট করার জন্য প্রয়োজন ২৫/৩০ হাজার টাকা। কিন্তুু সাথে এত টাকা নাই, তাই বন্ধুর শরণাপন্ন হতে হয়। বন্ধু ও সরল বিশ্বাসে ভালোবাসার টানে বিকাশের মাধ্যমে কাঙ্খিত টাকা পাঠিয়ে দেন। তারপর থেকে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়।
বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, ‘কখনো ভিডিও কলে কথা বলেন না, তাতে ধরা পড়ে যাওয়ার ভয় থাকে। কন্ঠ পরিবর্তন করে মেয়ের কন্ঠে কথা বলে কখনো প্রবাসী সুরেলা নারী, কখনো পুলিশ অফিসার, কখনো মেয়ের মা, কখনো মেয়ের বোন সেঁজে নিপুন অভিনয় করে প্রতারক বিকাশের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়। এত কৌশল করেও কন্ঠ অভিনেতা হয়েও শেষ পর্যন্ত তার শেষ রক্ষা হলো না। সুনিদিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ সাজেদুল ইসলাম সজল এর নেতৃত্বে র‍্যাব-৪, সাইবার মনিটরিং সেলের একটি চৌকস আভিযানিক দল ২০ অক্টোবর সন্ধ্যায় নরসিংদী জেলাধীন মনোহরদী থানা এলাকায় মনোহরদী পৌরসভা বাজার হতে অভিযুক্ত প্রতারক মাসুক মিয়া @ মাসুদ (২৮) জেলাঃ সিলেট’কে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত আসামীকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায় যে, `অভিযুক্ত ডিজিটাল প্রতারক মাসুক মিয়া Soniya Akter keya নামে ফেক ফেসবুক আইডি খুলে Tanzim Mehezabin Khan Sneha নামক মেয়ের ছবি প্রোফাইল পিকচার ব্যবহার করে নিজেকে লন্ডন প্রবাসী পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন ছেলেদের ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট পাঠিয়ে বন্ধুত্ব স্থাপন করে কখনো ম্যাসেঞ্জারে,আবার কখনো মোবাইলে সরাসরি কন্ঠ পরিবর্তন করে মেয়ে কন্ঠে কথা বলে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করে উপরোক্ত প্রক্রিয়ায় প্রতারণা করে নিরীহ ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে এপর্যন্ত ১৫-২০ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছে।
গ্রেফতারকৃত আসামী এসব অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করেছে এবং এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন। অদূর ভবিষ্যতে এইরুপ অসাধু ডিজিটাল প্রতারক চক্রের বিরুদ্ধে র‌্যাব-৪ এর জোড়ালো সাঁড়াশি অভিযান অব্যাহত থাকবে।