বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, সন্ধ্যা ৬:২৮

সাহায্যের আবেদন খাগড়াছড়ির হতদরিদ্র মোঃ হানিফের চিকিৎসার।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : মোঃ আনা মিয়া ও আলেয়া বেগমের ছেলে হতদরিদ্র মোঃ হানিফ হোসেন। তারা বসবাস করেন খাগড়াছড়ি সদর পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড উত্তর সবুজ বাগ এলাকায়। এলাকায় দৈনিক রাজমিস্ত্রী দিনমজুরের কাজ করেই চলতো সংসার।
বাবা মা দুজনেই বয়স্ক এবং পরিবারের একমাত্র উপার্জন কারি ব্যক্তি ছিলেন মোঃ হানিফ
কয়েকমাস আগে অন্যের বাড়িতে দিনমজুরের কাজ করতে যাওয়ার সময় অটোরিকশা (টমটম) চালক অসাবধানতাবশত চালালে গাড়িটি উল্টে খাদে পড়ে যায়, এই এক্সিডেন্ট এর ফলে পেট এবং শরীরে মারাত্মক ভাবে আহত হন মোঃ হানিফ। এসময় স্থানীয় এলাকার মানুষ তাকে দ্রুত খাগড়াছড়ি আধুনিক সদর হাসপাতালে নিয়ে আসেন হাসপাতালে ভর্তি থাকেন অনেক দিন, অর্থ না থাকায় বাড়িতে নিয়ে আসতে বাধ্য হয়, চিকিৎসা করালেও অর্থাভাবে ভালো উন্নত কোন চিকিৎসা করাতে পারেনি।
বর্তমানে তার পুরো শরীর অকেজো অবস্থায় বিছানায় পড়ে আছে এতোটাই খারাপ অবস্থা যে তাকে খাদ্য নালির মাধ্যমে খাওয়াতে হয় এবং নালির মাধ্যমে মলমূত্র ত্যাগ করাতে হয় , তার পরিবারের একমাত্র আয়-রোজগারের মাধ্যম ছিলেন মোঃ হানিফ। ডাক্তার এর মতে, সর্বমোট ৪ টি অপারেশনে করলে হানিফ কিছুটা সুস্থ হতে পারবে।
হতদরিদ্র পরিবারটি ইতিমধ্যে তারা অনেক ধার দেনা করে ২টি অপারেশন করিয়েছেন কিছুদিনের মধ্যে আরো দুইটি অপারেশন করাতে হবে প্রতিটি অপারেশনের খরচ প্রায় ১,০০,০০০/- টাকার বেশি, প্রতিনিয়ত ঔষধ বাবদ তাদেরকে বেশকিছু টাকা গুনতে হয় যা তার পরিবারের পক্ষে যোগাড় করা খুবই কষ্টকর।
খাগড়াছড়ি জেলা সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন অতি শীঘ্রই অপারেশন করাতে হবে। অন্যথায় বড় ধরনের শারিরীক ক্ষতির আশঙ্কার কথাও জানান চিকিৎসকরা, যা ব্যাপক ব্যয়বহুল।
পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তির এমতাবস্থায় পরিবারটির অসহায়ত্ব যেন দ্বিগুন বেড়েই চলছে।
এদিকে, অসহায় হানিফের চিকিৎসার্থে তার আত্মীয়-স্বজন পাড়া-প্রতিবেশী, স্থানীয় যুবকরা এগিয়ে এসেছেন এবং সামর্থ অনুযায়ী পরিবারটির পাশে দাঁড়ানোর জন্য সমাজের বিত্তশালীদের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন, হতদরিদ্র হানিফকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা:
সরাসরি রোগীর পরিবারের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন- রোগীর আত্মীয়-০১৩০৯৭৪১৭৯৭
(পার্সোনাল) বিকাশ,নগদ -০১৮৬৭৭২২৫১০
“মোঃ চাঁন মিয়া সংবাদদাতা পানছড়ি (খাগড়াছড়ি)”