সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, দুপুর ২:২৮

মিন্টু হত্যার আরো এক আসামী গ্রেফতার।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : অটোরিকশা চালক শেখ মিন্টু হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে সেলিম মিয়া (৩২) নামের আরো এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এবং এই ঘটনা আশুলিয়ায় আলোচিত ঘটনা।
শনিবার সকালে সাভারের জামসিং এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে সাভারের ছিনতাই চক্রের অন্যতম সদস্য।
গ্রেফতার সেলিম মিয়া সাভারের জামসিং এলাকার মৃত ইব্রাহিম মিয়ার ছেলে। মিন্টু হত্যাকান্ডের পর থেকে সে পলাতক ছিল। এর আগে ১৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার পুলিশ পরিদর্শক মো. রাশিদুল ইসলামের নেতৃত্বে সাভারের জামসিং এলাকা থেকে মুলহোতা আলী হায়দার নাহিদকে গ্রেফতার করা হয়।
জানা যায়, গত ১৩ জুলাই গ্রেফতার নাহিদ ও তার দুই সহযোগী মেম্বরের মোড় ও মোল্লা টাওয়ারের মাঝামাঝি এলাকায় গেরুয়া যাওয়ার জন্য একটি অটোরিকশা ১৭০ টাকায় ভাড়া করে রওনা দেয়। তাদের উদ্দেশ্য হলো অন্ধকার নির্জন জায়গায় ব্যাটারী ছিনতাই। যাওয়ার পথে রাস্তা খারাপ থাকায় রিকশাচালক মোকামটেক দিয়ে যায়। এই সড়কের গলি অত্যাধিক অন্ধকার থাকায় রিকশাচালক যেতে নারাজ হয়। সে অটোরিকশা থামিয়ে ভাড়া দিতে বলে। তারা ভাড়া না দেওয়ায় অটোরিকশাচালক চিৎকার চেচামেচি শুরু করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে দলনেতা নাহিদ তার সুইচ গিয়ার চাকু দিয়ে অটোরিকশা চালক শেখ মিন্টুর পেটে ও গলায় পরপর কয়েকটি আঘাত করে। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে জাহাঙ্গীরনগরের প্রাচীরের নিচ দিয়ে ঝাউবনে পালিয়ে যায় তারা। এরপর উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে গত ১৯ ডিসেম্বর প্রথমে আলী হায়দার নাহিদ ও ৯ জানুয়ারি সেলিম মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়।
পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর পরিদর্শক রাশিদুল ইসলাম জানান, উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করে সাভারের জামসিং এলাকা থেকে সেলিম মিয়াকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।