শনিবার, ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, রাত ২:৪৯

প্রতিবাদ করায় যুবককে ছুরিকাঘাত।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : কর্মচারীর মেয়েকে মোবাইল ফোনে কুপ্রস্তাব দেয়ার প্রতিবাদ করায় মো. মেহেদী ঢালী (৩০) নামে এক পাথর ব্যবসায়ীকে এলোপাথাড়ি মারধর ও ছুরিকাঘাতে হত্যার চেষ্টা করেছে ৪ বখাটে আর এই ঘটনা রাজধানীর ডেমরায়। এই সময় রাজন (৩০) নামে তার বন্ধুকেও একইভাবে আহত করা হয়।
শুক্রবার জুমার নামাজের সময় শুকুরশী ঢালিপাড়া জামে মসজিদের সামনে এই ঘটনা ঘটে।
এই সময় ধারালো ছুরি দিয়ে মেহেদীর পেটে, ঘাড়ে ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় তার ভুড়ি বেরিয়ে যায় ও ঘাড়ের একটি রগ কেটে যায়। পাশাপাশি রড ও স্লাইডিং রেঞ্জ দিয়ে এলোপাথাড়িভাবে ওই দুজনকে আঘাত করে পালিয়ে যায় ওই এলাকার মৃত আমান উল্লাহর ছেলে নূর আলম ওরফে নূরা ও তার তিন সহযোগী।
স্থানীয়রা রক্তাক্ত জখম অবস্থায় মেহেদী ও রাজনকে উদ্ধার করে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। বর্তমানে রাজন আশঙ্কামুক্ত হলেও মেহেদী ঢালীর অবস্থা খুবই নাজুক বলে জানা গেছে।
এদিকে খবর পেয়ে ডেমরা থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনসহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে যায়।
স্থানীয় সূত্র জানায়, পাথর ব্যবসায়ী মেহেদীর কর্মরত শ্রমিক সরদার হরৎ কুমারের মেয়েকে মোবাইল ফোনে নানা কুপ্রস্তাব দিয়ে উত্ত্যক্ত করতো নূরা। হরৎ কুমার বিষয়টি মেহেদীকে জানালে শুক্রবার দুপুরে নূরাকে ডেকে শাসন করায় মেহেদীর সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে নূরা। পরবর্তীতে মেহেদী ও রাজন জুমার নামাযে যাওয়ার পথে আগে থেকে ওত পেতে থাকা নূরা ও তার সহযোগীরা রাস্তায় এই ঘটনা ঘটায়।
ডেমরা থানার পরিদর্শক (অপারেশন) নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, ঘটনার পর আসামিরা পলাতক রয়েছে। তবে এই বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আর অভিযুক্তকে দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনা হবে।