শনিবার, ২রা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, দুপুর ১২:১৪

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে ধর্ষণ।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : দুই শিশু সন্তানকে ঘরে আটকিয়ে রেখে বান্দরবানের লামায় প্রবাসীর অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে ধর্ষণ, মারধর ও বসতবাড়ি লুটপাটের অভিযোগে অভিযুক্ত জয়নাল আবেদীনকে আটক করেছে র‌্যাব-১৫, বান্দরবান। রবিবার সন্ধ্যা সোয়া ৭টায় বান্দরবান ক্যাম্পের একটি দল উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নের মাষ্টারপাড়া পাহাড়ের পাদদেশে থেকে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করে।
র‌্যাব-১৫ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (ল এন্ড মিডিয়া) জনাব, মো. আবু সালাম চৌধুরী স্বাক্ষরিত প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, ভুক্তভোগী ওই নারী উপজেলার রুপসী পাড়া ইউনিয়নের বৈদ্যভিটা এলাকায় নিজ বাড়িতে একা থাকতেন। গত ২২ ডিসেম্বর গভীর রাতে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘর থেকে বের হলে দুর্বৃত্তরা তার মুখ চেপে ধরে হাত-পা বেঁধে ফেলে এবং তার দুই শিশু সন্তানকে ঘরে তালাবদ্ধ করে রেখে রাতভর জোরপূর্বক ধর্ষণ ও নির্যাতন চালায়।
ধর্ষণের পর দুর্বৃত্তরা বাড়ির আলমারি ভেঙে নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। পরদিন সকালে প্রতিবেশী এক নারী ওই বাড়িতে পানির জন্য গেলে ঘরের জানালা দিয়ে দুই শিশু সন্তানকে কান্না করতে দেখেন। তখন উক্ত নারী ঘরের পেছনে গিয়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় পেয়ে আশপাশের লোকজনকে খবর দেয় এবং তার চিকিৎসার জন্য নিকটস্থ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। এ ঘটনায় উক্ত নারী বাদী হয়ে ধর্ষণ ও নির্যাতনের অভিযোগে জয়নাল আবেদীনসহ দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।
এ ঘটনার প্রেক্ষিতে র‌্যাব-১৫ এর বান্দরবান ক্যাম্প ছায়াতদন্ত শুরু পূর্বক অপরাধীদের গ্রেপ্তারের জন্য গোয়েন্দা তৎপরতা বৃদ্ধি করেন। নির্ভরযোগ্য তথ্যের ভিত্তিতে ২ জানুয়ারি সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে র‌্যাব বান্দরবান ক্যাম্পের একটি চৌকষ আভিযানিক দল অভিযান চালিয়ে উপজেলার রুপসীপাড়া ইউনিয়নের মাষ্টারপাড়া পাহাড়ের পদদেশে জঙ্গলাকীর্ণ এলাকা হতে জয়নাল আবেদীনকে আটক করে।