রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩০শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, রাত ৮:০৭

অভিমান করে এক কিশোর আত্মহত্যা করেছে।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : বড় ভাইয়ের বিয়ে দেখে নিজের বিয়ের ইচ্ছে জাগে কিশোরের এবং অভাবের সংসারে টেনেটুনে কোনমতে বড় ভাইয়ের বিয়ে হয়েছিলো সম্প্রতি আর এই ঘটনা পাবনার চাটমোহর। নানাভাবে গতকিছুদিন ধরেই নিজের বিয়ের দাবী তুলেছিল কিশোর। একদিকে অভাবের সংসার অন্যদিকে অপরনীত বয়স দুই মিলে কিশোরের দাবীকে পাত্তা দেয়নি পরিবারের কেহ। এই অভিমানের জের ধরে এত বড় কান্ড করে বসবে কিশোর, স্বপ্নেও কেহ ভাবেনি।
বিয়ে না করানোর কারণে শুক্রবার সকালে ঝগড়ার একপর্যায়ে নিজের ঘরে গিয়ে বিষপান করে মো. শান্ত (১৬) নামের ঐ কিশোর। পরিবারের লোকজন দ্রুত তাকে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করান। শুক্রবার (২৩ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। মৃত শান্ত উপজেলার নিমাইচড়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের আবদুল আলিমের ছেলে।
শান্তর স্বজনদের বরাত দিয়ে ভাঙ্গুড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জনাব, মো. ফয়সাল বিন আহসান জানান, শান্ত খুব গরিব ঘরের সন্তান। তার বাবা কৃষি কাজ ও দিনমজুরি করে সংসার চালান। কিছুদিন আগে শান্তর বড় ভাই পারিবারিকভাবে বিয়ে করেন। এতে তাদের সংসারের খরচ বেড়ে যায় এবং পরিবারটি দেনাগ্রস্ত হয়ে পড়ে।
এ অবস্থায় শান্ত বিয়ে করবে বলে জেদ করে। এতে তার বাড়ির লোকজন সাংসারিক অভাবের কারণে তার কথায় সম্মতি দেননি। এছাড়া তার বিয়ের বয়সও হয়নি।
ওসি আরও জানান, বিয়ের জন্য শান্ত বাড়িতে বেশ কিছুদিন ধরেই ঝগড়া করে আসছিল। সর্বশেষ শুক্রবার সকালেও সে বাড়িতে ঝগড়া করে। এরপর সকাল ৯টার দিকে সে তার নিজ ঘরে বিষপান করে। তার মা বিষয়টি টের পান। বাড়ির লোকজন তাকে উদ্ধার করে নিকটস্থ ভাঙ্গুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেলা ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়।
ওসি জনাব, ফয়সাল বলেন, শান্তর মরদেহ ময়নাতদন্তর জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে ভাঙ্গুড়া থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।