সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৩:০০

রাজশাহীতে বিকাল থেকে ৭ দিনের লকডাউন এবং সংক্রমণ বাড়ছে।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার বাড়তে থাকায় রাজশাহী মহানগরে সাত দিনের লকডাউন দেয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায় যে, একক জেলা হিসেবে রাজশাহীতে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৫৩ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে।
এরপর ওইদিন রাতেই জেলার সার্কিট হাউজে দীর্ঘ সভা শেষে লকডাউনের এই ঘোষণা দেয়া হয়।
শুক্রবার বিকেল ৫টা থেকে বৃহস্পতিবার ১৭ই জুন মধ্যরাত পর্যন্ত এই লকডাউন চলবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক জনাব, আব্দুল জলিল।
সবশেষ তথ্য অনুযায়ী, রাজশাহী জেলায় সংক্রমণের হার ২৩%। আর মোট সংক্রমণের প্রায় ৯০ ভাগ শনাক্ত হয়েছে মহানগরীতে।
এ কারণে সংশ্লিষ্ট সবার সাথে আলোচনার ভিত্তিতে শুধুমাত্র মহানগরে এক সপ্তাহের এই লকডাউন দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে জানান জনাব, জলিল।
তিনি বলেন, শুরুতে আমাদের পরিকল্পনা ছিল শুক্রবার ভোর থেকে লকডাউন দেয়ার কিন্তু নগরবাসীকে প্রতিক্রিয়া ও প্রস্তুতির জন্য কিছুটা সময় দিতে লকডাউন বিকেল কার্যকর করা হচ্ছে।
লকডাউন চলাকালীন এই সময় রাজশাহীর সঙ্গে সব রুটের যাত্রীবাহী ট্রেনের চলাচল বন্ধ থাকবে বলে রেল মন্ত্রণালয় এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে।
এদিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ও উপসর্গ নিয়ে একদিনেই ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে শুক্রবার সকালে হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে।
সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনতে লকডাউন চলাকালে মহানগরীর সব অফিস আদালত, শপিং মল, দোকান, রেঁস্তোরা, ব্যবসা-প্রতিষ্ঠান ও সব ধরণের যানবাহনের চলাচল নিষেধাজ্ঞা থাকবে।
তবে, হাসপাতাল, ক্লিনিক, ডায়াগনস্টিক সেন্টার, ওষুধের দোকান, অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস, ফায়ার সার্ভিস, এবং নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান, কাঁচাবাজার ও জরুরি পণ্য সরবরাহকারী গাড়ির চলাচল লকডাউনের আওতার বাইরে থাকবে।
এছাড়া স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে কিনা সেটা তদারকি করতে দোকানপাট ও কাঁচাবাজার এলাকায় পুলিশ ও মেজিস্ট্রেট অবস্থান নেবে বলে জানা গেছে।
সূত্র : বিবিসি বাংলা।