বুধবার, ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, বিকাল ৫:৩৫

একজন তরুণীকে ধর্ষণ করা হয়েছে এবং যুবক গ্রেপ্তার।

ডেইলি ক্রাইম বার্তা ডেস্ক : ১৯ বছর বয়সী এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে মাদক ব্যবসায়ী আল-আমিন ওরফে বাপ্পিকে (২৫) আটক করেছে পুলিশ আর এই ঘটনা সাতক্ষীরার কালীগঞ্জের রতনপুর ইউনিয়নের সুবর্ণগাছি গ্রামের।
শনিবার (২২ মে) সকাল ১০ টার দিকে থানার উপ-পরিদর্শক তারিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা উপজেলার নাজিমগঞ্জ এলাকা থেকে তাকে আটক করে।
আটককৃত আল-আমিন ওরফে বাপ্পি উপজেলার মথুরেশপুর ইউনিয়নের গণপতি গ্রামের শেখ মোস্তাফিজুর রহমানের ছেলে।
ভুক্তভোগী ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ১৯ মে সকালে ওই তরুণী সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার এক অসুস্থ আত্মীয়কে দেখতে যায়। বিকেলে হাসপাতাল থেকে বাসযোগে বাড়ির উদ্দেশে রওনা দেন। যুবতীর বাড়ি ফিরতে সন্ধ্যা হওয়ায় তিনি কালীগঞ্জ টার্মিনালে নেমে তার পরিচিত ভাই শামীম হোসেনকে ফোন দেয়।
ওই সময়ে শামীমের ফোন বন্ধ থাকায় তিনি উপজেলার মথুরেশপুর ইউনিয়নের বসন্তপুর গ্রামস্থ শামীমের বাড়িতে যায়। সেখানে কাউকে না পেয়ে উপজেলা সদরের দিকে ফিরে আসছিলেন। পথিমধ্যে নাজিমগঞ্জ বিজিবি ক্যাম্প এলাকায় পৌঁছালে স্থানীয় কিছু জনতা তাকে বিভিন্ন প্রশ্ন করতে থাকে। ওই সময়ে তরুণী ঘটনার বিবরণ দিলে উপস্থিত লোকজনের মধ্যে থেকে অভিযুক্ত বাপ্পি তাকে মোটরসাইকেল যোগে বাড়িতে আগাইয়া দেবে বলে নিয়ে যায়। রাত সাড়ে ৮টার দিকে অভিযুক্ত বাপ্পি ওই তরুণীকে বাড়িতে আগাইয়ে না দিয়ে নিজ বাড়িতে নিয়ে যায়।
এরপর শয়নকক্ষের মধ্যে নিয়ে ওই তরুণীর ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। ওই সময়ে তার চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে বাপ্পি ঘটনাস্থল থেকে দ্রুত পালিয়ে যায়। পরবর্তীতে ওই তরুণী কালীগঞ্জ থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে শনিবার সকাল ১০ টার দিকে থানার উপ-পরিদর্শক তারিকুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশ সদস্যরা উপজেলার নাজিমগঞ্জ এলাকা থেকে আসামি বাপ্পিকে আটক করে।
থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধর্ষণ মামলায় আসামি বাপ্পিকে শনিবার বেলা ১২ টার দিকে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।